Message from Principal

  • উত্তরবঙ্গ তথা বাংলাদেশের অন্যতম সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও শান্তির শহর রাজশাহীর পদ্মা আবাসিক এলাকায় গাছ-পালা পরিবেষ্ঠিত ছায়াঘেরা মনোরম পরিবেশে কলেজটি অবস্থিত। কলেজটি ...

Vice Principal Message

  • উত্তরবঙ্গ তথা বাংলাদেশের অন্যতম সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও শান্তির শহর রাজশাহীর পদ্মা আবাসিক এলাকায় গাছ-পালা পরিবেষ্ঠিত ছায়াঘেরা মনোরম পরিবেশে কলেজটি অবস্থিত। কলেজটি রাজনীতি ...

মাদার বখ্‌শ্‌ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের ইতিহাস

  • মাদার বখ্‌শ্‌ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ বাংলাদেশের ইতিহাসে দ্বিতীয় গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ এবং এখনও উত্তরবঙ্গের একমাত্র গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ। দেশের প্রথম গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজটি ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬২ সালে। দেশের উত্তরাঞ্চলের অভিভাবকদের আর্থিক অসামর্থ, সামাজিক পশ্চাৎপদতা এবং ভর্তির সংকটের বিষয়টি বিবেচনা করে রাজশাহীতে এ ধরনের একটি কলেজ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

    ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠিত মাদার বখ্‌শ্‌ আইডিয়াল স্কুলে ১৯৮৬ সালের ২ b‡f¤^i এ কলেজের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন মাননীয় উপাচার্য মহোদয় প্রফেসর এম এ রকীব এ কলেজের উব্দোধন করেন।

    প্রথমে এ কলেজটির নাম রাখা হয় মাদার বখ্‌শ্‌ মহিলা কলেজ। মাদার বখ্‌শ্‌ আইডিয়াল স্কুল থেকে কলেজটি ১৯৮৬ সালে রাজশাহী মহানগরীর চন্ডীপুর এলাকায় মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগ নিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ হিসেবে যাত্রা শুরু করে। শুরুতে মানবিক বিভাগে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হলেও বাণিজ্য বিভাগে কোন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়নি। পরবর্তীতে বাণিজ্য বিভাগ বিলুপ্ত করে ১৯৯২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিভাগ খোলা হয় এবং ”মাদার বখ্‌শ্‌ মহিলা কলেজ” নাম পরিবর্তন করে নাম রাখা হয় ”মাদার বখ্‌শ্‌ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, রাজশাহী।” আজও কলেজটি এ নামেই পরিচিত।

    এরপর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ১৯৯৪-৯৫ শিক্ষাবর্ষ থেকে গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিষয়ে এ কলেজে বি, এসসি (পাস) কোর্স, ১৯৯৮-৯৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিষয়ে বি, এসসি সম্মান কোর্স, ২০০২-০৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিষয়ে এম, এসসি কোর্স, ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষ থেকে ”গার্হস্থ্য অর্থনীতি” বিষয়ে এম, এসসি পূর্বভাগ কোর্স এবং রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ২০০২-০৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে বিজ্ঞান বিভাগ অধিভূক্ত করা হয়।

    ১৯৯২-৯৩ অর্থবছরে কলেজটি বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি প্রকল্পের আওতায় আসে। ফলে রাজশাহী শহরের পদ্মা আবাসিক এলাকায় ৮৬ কাঠা জমির উপর পাঁচতলা একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবন, চারতলা অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও রেসিডেন্স কোর্সের ভবন নির্মিত হয়। প্রকল্পের অর্থে পর্যাপ্ত বইপত্র, গার্হস্থ্য অর্থনীতি ও বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ল্যাবরেটরির য্‌ন্ত্রপাতি, আসবাব পত্র, শিক্ষা উপকরণ, খেলাধুলা সামগ্রী ও কম্পিউটার ক্রয় করা হয়।

    পরবর্তীতে সরকারের ফ্যাসিলিটিজ বিভাগের মাধ্যমে পাঁচ তলার ভিত্তি দিয়ে দোতলা হোস্টেল ভবন নির্মাণ করা হয়, যেখানে বর্তমানে প্রায় ১০০ ছাত্রী অবস্থান করছে। এ ছাড়াও বর্তমানে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে লাইব্রেরি কাম অডিটোরিয়াম ভবন নির্মানের কাজ চলছে।